Skip to content

জিডিপি কি? জিডিপি কাকে বলে? জিডিপির সংজ্ঞা | ২০২৪

জিডিপি কি

জিডিপি অর্থনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কোন দেশের প্রবৃদ্ধি জিডিপির মাধ্যমে বিচার করা হয়। কোন দেশের উৎপাদন, নিয়োগ, দামস্তর ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে হলে জিডিপি  ও তার সাথে সংশ্লিষ্ট ধারণাগুলো সম্পর্কে জানতে হবে।

তো আমরা আজকে জানবো জিডিপি কি? বা জিডিপি কাকে বলে। তাহলে দেরী না করে চলুন দেখে নেই জিডিপি কি?

জিডিপি কি?

একটি দেশের ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক সীমারেখার মধ্যে দেশে অবস্থিত সকল ব্যক্তিবর্গ (দেশি ও বিদেশি) প্রাপ্ত সম্পদ ব্যবহার করে যে পরিমাণ দ্রব্য ও সেবাসামগ্রী উৎপাদন করে তার আর্থিক মূল্যকে মোট দেশজ উৎপাদন বা GDP (Gross Domestic Product) বলে। ত

অথবা একটি নির্দিষ্ট সময়ে সাধারণত এক বছরে একটি দেশের অভ্যন্তরে উৎপাদিত মোট দ্রব্য ও সেবাসমূহের সমষ্টিকে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বা মোট দেশজ উৎপাদন বলে। মোট দেশজ উৎপাদনকে সংক্ষেপে জিডিপি (GDP) বলা হয়।

অর্থাৎ, জিডিপি তে দেশের অভ্যন্তরে উৎপাদিত সকল দ্রব্যসামগ্রী ও সেবাকর্মের মূল্য হিসাব করা হয়। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সকল জনগণ এবং অবস্থানরত বিদেশি মিলে একবছরে যে পরিমাণ দ্রব্যসামগ্রী ও সেবা উৎপাদন করে তা হচ্ছে সেই নির্দিষ্ট বছরে বাংলাদেশের জিডিপি। 

সুতরাং একটি দেশের জিডিপি থেকে ঐ দেশের মোট উৎপাদন ক্ষমতা তথা অর্থনীতির চিত্র সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়।

মোট জাতীয় উৎপাদন (GNP): 

একটি নির্দিষ্ট সময়ে সাধারণত এক বছরে একটি দেশের জনগণ যে পরিমাণ বস্তুগত ও অবস্তুগত চূড়ান্ত দ্রব্য ও সেবা উৎপাদন করে তার সমষ্টিকে মোট জাতীয় উৎপাদন (GNP) বলে। 

একটি দেশের জনগণ দেশের ভেতরে ও দেশের বাহিরে অবস্থান করে উৎপাদন কাজ করতে পারে। তাই বিদেশে অবস্থানরত দেশীয় নাগরিকদের অর্জিত আয় GNP-তে অন্তর্ভূক্ত হয়। 

দেশের অভ্যন্তরে উৎপাদিত পণ্য ও সেবা বিদেশে বিক্রয় তা হল রপ্তানী আর বিদেশে উৎপাদিত পণ্য ও সেবা দেশের অভ্যন্তরে বিক্রয় তা হল আমদানি। 

এ রপ্তানি ও আমদানির ব্যবধানকে নীট রপ্তানি আয় বলে । অতএব একটি দেশের সব নাগরিকদের মোট ভোগ ব্যয়, মোট বিনিয়োগ ব্যয়, মোট সরকারি ব্যয় এবং নীট রপ্তানি আয়ের সমষ্টিকে মোট জাতীয় উৎপাদন (GNP) বলা হয়।

জিডিপি কাকে বলে
Photo by Canva

নীট জাতীয় উৎপাদন (Net National Product):

মোট জাতীয় উৎপাদন হতে যন্ত্রপাতি, কলকব্জা, কারখানা, বাড়িঘর ইত্যাদির ক্ষয়-ক্ষতির ব্যয় বাদ দিয়ে যেটুকু অবশিষ্ট থাকে তাকে নীট জাতীয় উৎপাদন বলে। 

উৎপাদন কাজে যন্ত্রপাতি, কলকব্জা, বাড়িঘর প্রভৃতি ব্যবহার করার ফলে তাদের ক্ষয়-ক্ষতি হয়। এ জন্য তাদের সংস্কার ও মেরামতের প্রয়োজন হয়। আবার সময়ের সাথে সাথে এ সমস্ত যন্ত্রপাতি, বাড়িঘর ইত্যাদি সম্পূর্ণভাবে অকেজো বা বিকল হয়ে পড়ে। 

মোট জাতীয় উৎপাদন হতে মূলধনী দ্রব্যের ক্ষয়-ক্ষতিজনিত ব্যয় বাদ দিলে যা অবশিষ্ট থাকে তা হল ‘নীট জাতীয় উৎপাদন’ (Net National Product- NNP)।

অতএব, যন্ত্রপাতি, বাড়িঘরের সংস্কার এবং এদের মেরামত বাবদ মোট যে পরিমাণ অর্থ ব্যয় হয় তাকেই ‘ক্ষয়-ক্ষতিজনিত ব্যয় (Capital Consumption Allowance -CCA) বলে। 

জিডিপি মানে কি? জিডিপি কি? জিডিপি কাকে বলে? What Is GDP? How To Calculate GDP? In Bangla

রিলেটেডঃ দর্শন কাকে বলে? দর্শন কি? দর্শনের সংজ্ঞা ২০২৩

নীট দেশজ উৎপাদন (NDP):

একটি নির্দিষ্ট সময়ে সাধারণত এক অর্থবছরে কোন দেশের ভৌগোলিক সীমারেখার মধ্যে যে সমস্ত চূড়ান্ত দ্রব্য ও সেবাসমূহ উৎপাদিত হয় তার আর্থিক মূল্য হতে মূলধনী দ্রব্যের ক্ষয়-ক্ষতিজনিত ব্যয় বাদ দিলে যা অবশিষ্ট থাকে তাকে ‘নীট দেশজ উৎপাদন’ (NDP) বলে। 

আবার বলা যায় যে, মোট দেশজ উৎপাদন (GDP) হতে মূলধনী দ্রব্যের ক্ষয়-ক্ষতিজনিত ব্যয় বাদ দিলে নীট দেশজ উৎপাদন (NDP) পাওয়া যায়। 

সুতরাং-

NDP=GDP-CCA

এখানে, CCA =মূলধনী দ্রব্যের ক্ষয়-ক্ষতিজনিত ব্যয়।

তো বন্ধুরা এই ছিলো আজকের লেখা জিডিপি কি, ও তার সমজাতীয় অর্থনৈতিক ধারণাসমূহ। জিডিপি, মোট জাতীয় উৎপাদন,  নীট জাতীয় উৎপাদন, নীট দেশজ উৎপাদন এগুলো একটার সাথে আরেকটি ওতপ্রোতভাবে জড়িত, তাই আমি এই লেখাতে জিডিপি কি ও তার সাথে জড়িত ধারণাগুলিও সম্পর্কে পরিচিত করার চেষ্টা করেছি।

যদি এই লেখাটি ভালো লেগে থাকে তাহলে লেখাটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আজকের মতো এখানেই বিদায়, দেখা হবে আগামী লেখাতে।

Leave a Reply